দাঁতের যত্নে নারকেল তেল কীভাবে ব্যবহার করবেন ?

দাঁতের যত্নে নারকেল তেল- মসৃণ ত্বক আর ঝলমলে চুলের জন্য নারকেল তেলের ব্যবহার হয়ে আসছে বহুকাল আগে থেকেই।

তবে জানেন কি, দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এবং দাঁতের যত্নেও নারকেল তেল ব্যবহৃত হয়ে আসছে অনেক দিন ধরে?

মুখের দুর্গন্ধ, দাঁতের ক্ষয়, মাড়ির বিভিন্ন সমস্যা প্রতিরোধে নারকেল তেল একটি উপকারী ঘরোয়া উপাদান।

নারকেল তেল মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে দাঁত ক্ষয় ও মাড়ির রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

২০১৫ সালে নাইজেরিয়ান মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, নারকেল তেল দাঁতের প্লাক তৈরিতে বাধা দেয় এবং প্লাক সম্পর্কিত সমস্যা কমায়।

দাঁতের যত্নে নারকেল তেল ব্যবহারের উপায় জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি।

১. এক টেবিল চামচ নারকেল তেল মুখে রেখে কুলকুচির মতো করতে থাকুন। সবচেয়ে ভালো হয় এক্সট্রা ভার্জিন কোকোনাট ওয়েল ব্যবহার করতে পারলে।

২. অন্তত ১০ থেকে ১৫ মিনিট কুলকুচি করার পর মুখ থেকে ফেলে দিন। গার্গল করবেন না বা গিলে ফেলবেন না।

৩. এবার মুখ ব্রাশ করে ফেলুন।

৪. সকালে নাশতা খাওয়ার পর প্রতিদিন এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

৫. পাশাপাশি প্রতিদিন নারকেল তেল দিয়ে মাড়ি ম্যাসাজ করুন।

একটি খাবার বাদ দিয়ে কমাতে পারেন পেটের মেদ

বর্তমান সময়ের একটি প্রচলিত প্রশ্ন হলো, পেটের মেদ কীভাবে কমাব। ওজন কমানোর ক্ষেত্রে ডায়েট, ব্যায়াম একটু ধীরগতির প্রক্রিয়া। তবে খাদ্যতালিকা থেকে একটি খাবার বাদ দিলে কিন্তু ওজন দ্রুত কমে যায়।

আর সেটি হলো চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার।

এ-সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট ফেমিনা।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, চিনি বা মিষ্টিজাতীয় খাবারের সঙ্গে টাইপ টু ডায়াবেটিস ও ফ্যাটি লিভার ডিজিজের সংযোগ রয়েছে।

অন্যদিকে, অনেক গবেষণায় দেখা গেছে, অতিরিক্ত চিনি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়ার সঙ্গে পেটের মেদ বাড়ার সম্পর্ক রয়েছে।

তাই চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার যতটা লোভনীয়ই হোক না কেন, পেটের মেদ কমাতে এ ধরনের খাবার যতটা কম খাওয়া যায়, ততই ভালো বলে পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *